মেনু নির্বাচন করুন
Text size A A A
Color C C C C
সর্ব-শেষ হাল-নাগাদ: ১০ মার্চ ২০২১

বিএলআরআই এ মহান শহীদ দিবস ও আন্তর্জাতিক মাতৃভাষা দিবস পালিত


প্রকাশন তারিখ : 2021-02-21
যথাযথ ভাবগাম্ভীর্য ও বিনম্র শ্রদ্ধার সাথে বাংলাদেশ প্রাণিসম্পদ গবেষণা ইনস্টিটিউট (বিএলআরআই) কর্তৃক গত ২১ ফেব্রুয়ারি, ২০২১ খ্রিঃ তারিখ আন্তর্জাতিক মাতৃভাষা দিবস ও জাতীয় শহীদ দিবস উদযাপিত হয়েছে।
রাত ১২.০১ ঘটিকায় একুশের প্রথম প্রহরে সাভারে উপজেলায় অবস্থিত নবনির্মিত স্বাধীনতা চত্ত্বরের শহীদ মিনারে পুষ্পস্তবক অর্পণের মধ্য দিয়ে দিনব্যাপী এই কর্মসূচি শুরু হয়। বিএলআরআই এর মহাপরিচালক ড. নাথু রাম সরকার এর নেতৃত্বে এসময় শহীদ মিনারে পুষ্পস্তবক অর্পণ করেন ইনস্টিটিউটের সর্বস্তরের বিজ্ঞানী, কর্মকর্তা ও কর্মচারীগণ।
এরপর সকাল ৬.৩০ ঘটিকায় জাতীয় পতাকা অর্ধনমিত করা হয়। সকাল ১০.৩০ ঘটিকায় ইনস্টিটিউটের চতুর্থ সভার সম্মেলন কক্ষে অনুষ্ঠিত হয় এক আলোচনা সভা ও দোয়া মাহফিল। আলোচনা সভা ও দোয়া মাহফিলে অংশগ্রহণ করেন করেন ইনস্টিটিউটের সর্বস্তরের বিজ্ঞানী, কর্মকর্তা ও কর্মচারীগণ।
আলোচনা সভা ও দোয়া মাহফিলে প্রধান অতিথি হিসেবে উপস্থিত ছিলেন মহাপরিচালক ড. নাথু রাম সরকার। অনুষ্ঠানটি সঞ্চালনা করেন অতিরিক্ত পরিচালক জনাব মোঃ আজহারুল আমিন।
পরিত্র কুর’আন থেকে তেলোয়াত ও পবিত্র গীতা পাঠের মধ্য দিয়ে শুরু হয় অনুষ্ঠানটি। আলোচনা সভায় বক্তব্য রাখেন মুখ্য বৈজ্ঞানিক কর্মকর্তা, প্রধান বৈজ্ঞানিক কর্মকর্তা, উর্দ্ধতন বৈজ্ঞানিক কর্মকর্তা, বৈজ্ঞানিক কর্মকর্তা, কর্মকর্তা ও কর্মচারী পর্যায়ের একাধিক বক্তা। বক্তারা তাঁদের বক্তব্যে ভাষা আন্দোলনের ইতিহাস, এর গুরুত্ব ও তাৎপর্য, সর্বস্তরে বাংলা ভাষার ব্যবহার, বৈজ্ঞানিক গবেষণা ও প্রকাশনায় বাংলা ভাষা ব্যবহারের গুরুত্ব ও প্রয়োজনীয়তা ইত্যাদি বিভিন্ন বিষয় নিয়ে আলোচনা করেন।
প্রধান অতিথির বক্তব্যে মহাপরিচালক ড. নাথু রাম সরকার বলেন, মাতৃভাষায় দক্ষ না হলে অন্য ভাষায় দক্ষতা অর্জন করা সম্ভব নয়। নিজের ভাষাকে আত্মস্থ করতে পারলে অন্য ভাষা শেখা সহজ হয়। তাই নিজের ভাষা আগে সঠিকভাবে জানতে হবে, চর্চা ও উন্নয়নের জন্য কাজ করতে হবে। গবেষণা ক্ষেত্রে এখন বাংলাকেই বেশি গুরুত্ব দেওয়া হচ্ছে। তবে প্রযুক্তির অনুবাদ করার ক্ষেত্রে আরও সমৃদ্ধ, শ্রুতিমধুর ও বোধগম্য ভাষার ব্যবহার করতে হবে।
বিএলআরআই প্রাঙ্গনে একটি শহীদ মিনার নির্মাণ করা যায় কি না, তার সম্ভবনা যাচাই করার জন্য মহাপরিচালক মহোদয় আহ্বান জানান। পাশাপাশি তিনি একুশের চেতনা বাস্তবায়নে সবাইকে একসাথে কাজ করার এবং নিজ নিজ দায়িত্ব পালন করার আহ্বান জানিয়ে উপস্থিত সকলকে ধন্যবাদ জ্ঞাপন করে তার বক্তব্য শেষ করেন।
মহাপরিচালক মহোদয়ের বক্তব্য শেষ হবার পরে দোয়া মাহফিলের মধ্য দিয়ে অনুষ্ঠানটি শেষ হয়।

Share with :

Facebook Facebook